এনার্জি সেভিং ল্যাম্প এর বিজনেস ও মার্কেটিং প্ল্যান

আমি মনে করি, যেকোনো কাজ/বিজনেস করার জন্য প্রচণ্ড ইচ্ছাশক্তি ও ধৈর্যের প্রয়োজন হয়। বিজনেস ছোট থেকে শুরু করাই বুদ্ধিমানের কাজ। তাই আমি এখানে ছোট মানের বিজনেস পলিছি নিয়েই আলোচনা করলাম। প্রতিটি বিজনেস শুরু করতেই মূলত একই ধরনের কাগজপত্র লাগে তাই এটা নিয়ে আমি বললাম না।

তার আগে একটু বলে নেয়া ভাল যে এনার্জি স্যাভিং ল্যাম্প এর জন্য আপনার সামান্য হলেও টেকনিক্যাল আইডিয়া থাকলে ভাল হয়, যদি না থাকে তাহলে আপনি টেকনিক্যাল জ্ঞান সম্পন্ন একজনের সাহায্য নিতে পারেন, যে আপনার হয়ে কাজ করবে।

যেহেতু বাংলাদেশে অনেকগুলো কোম্পানি এনার্জি স্যাভিং ল্যাম্প নিয়ে অনেক আগে থেকেই কাজ করতেছে তাই আপনাকে পা ফেলতে হবে অত্যন্ত সাবধানে। যেমন আপনার ওইসব কোম্পানির প্রোডাক্ট এর দাম, মান ও মার্কেটিং পলিছি জানতে হবে বিস্তরভাবে।

(বাংলাদেশের প্রথম সারির মোটামুটি ৮ থেকে ১০ টি কোম্পানির প্রোডাক্ট টেস্ট রিপোর্ট আমার কাছে আছে তাই আমি জানি আমাদের প্রোডাক্ট এর কোয়ালিটি কেমন হওয়া দরকার বাজারে তাদের সাথে টিকে থাকতে হলে।)

আমাদের সার্ভে অনুযায়ী ঢাকার ভিতরে ট্রান্সটেক এবং ঢাকার বাইরে সুপারস্টার লাইটিং জগতে একচেটিয়া বিজনেস করে আসছে। তবে ময়মনসিংহ এলাকায় “লুমেনওসাকা  এবং প্রদীপ” বাল্ব তুলনামুলকভাবে ভালই বিক্রি হয়। শুরুতে আপনি যেকোনো একটি বা দুইটি স্থান বিবেচনা করে বিজনেস/মার্কেটিং পলিছি বেছে নিতে পারেন এতে আপনার কাস্টমার বাড়াতে সুবিধা হবে।

এনার্জি স্যাভিং ল্যাম্প আপনি দুই ভাবে চায়না থেকে আমদানী করতে পারেনঃ

১) একটি হল সম্পূর্ণ বাল্ব হিসাবে ও অপরটি

২) খুচরা পার্টস হিসাবে

তবে আমার জানমতে খুচরা পার্টস হিসাবে এনে তারপর আপনি সেট করে সম্পূর্ণ প্রোডাক্ট তৈরী করতে পারেন, এতে প্রোডাক্ট এর মান ভাল হয় ও ভাঙ্গার হার কম হবে।

এবার আয় ব্যয়ের হিসাবে আসা যাকঃ

৫,০০০ পিস (২৬ – ৩০ ওয়াট) প্রোডাক্ট এর দাম ১৪০ টাকা হিসাবে (গ্রাহকের হাত পর্যন্ত পোঁছাতে) = ৫,০০০*১৪০ = ৭০০,০০০ টাকা।

Wastage ৩% হিসাবে = ৫,০০০*০.০৩ = ১৫০ পিস

প্রোডাক্ট ক্রয় করার সময় বিক্রেতা ১% Wastage দিয়ে দেয় তারমানে টোটাল

Wastage দাঁড়ায় ২% = ৫,০০০*০.০২= ১০০ পিস।

যদি Wastage কোন কারনে ৩% এর বেশী হয় সেটা বিক্রেতা বহন করে। আপনি যদি ৫,০০০ পিস প্রোডাক্ট ক্রয় করেন তাহলে ৪৯০০ পিস ভাল প্রোডাক্ট পেতে পারেন।

এখন আপনি অনায়াসে প্রতিটি বাল্ব ১৮০-১৯০ টাকায় সেল করতে পারবেন।

বিশেষ অবগতি এই যে, এই দামের চাইতে কম দামে কোন ভাল কোম্পানিই তাদের প্রোডাক্ট সেল করেনা।

তাহলে ৪৯০০ পিস বাল্ব এর বিক্রয় মূল্য হয় = ৪৯০০*১৮০ = ৮৮২,০০০ টাকা।

সুতরাং আপনার লাভ হবে ১৮২,০০০ টাকা বা ২৬% নেট প্রফিট । আপনি যদি দুই তিন জন ভালমানের এনার্জি স্যাভিং ল্যাম্প ডিস্ট্রিবিউটর যোগাড় করতে পারেন তাহলে ৫,০০০ পিস বাল্ব সেল হতে আপনার এক থেকে দেড় মাস লাগতে পারে।

Written By
More from uddoktahub

ই-কমার্স ব্যবসায়ী হতে চান…?

পৃথিবীটা এখন আধুনিকতায় মোড়ানো। মানুষের রুচি,কথাবার্তা আর  চালচলনে এসেছে বিপুল পরিবর্তন। শুধুমাত্র...
বিস্তারিত পড়ুন...

Leave a Reply